Thu. Feb 29th, 2024

করোনা সংক্রমণ যাতে না ছড়ায় সেইজন্য ভোটারদের দেওয়া হয়েছিল প্লাস্টিকের গ্লাভস। কিন্তু ডাস্টবিনে না ফেলে, যস্ত্র তস্ত্র ব্যবহারিত গ্লাভস ফেলে রাখায় সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা বাড়ছে বালুরঘাটে

1 min read

আজকেরবার্তা, বালুরঘাট, 26এপ্রিলঃ নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় গ্রহণ করা হয়েছিল একাধিক নিয়ম। করোনা মুক্ত নির্বাচন করতে ভোট গ্রহণ কেন্দ্র করে মাক্স এর ব্যবহার স্যানিটাইজারের ব্যবহার, থার্মালটেস্ট এবং গ্লাভস এর ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছিল। ভোটকেন্দ্রগুলোতে সরকারের পক্ষ থেকে দেওয়া হচ্ছিল প্লাস্টিক গ্লাভস, স্যানিটাইজার এবং যাদের মুখে মাক্স ছিল না তাদের মাস্ক দেওয়া হয়। প্রত্যেক ব্যক্তিকে ভোট কেন্দ্রে ঢোকার আগে করা হচ্ছিল থার্মাল টেস্টিং। কিন্তু ভোট গ্রহণের পরে বালুরঘাট শহরের এক ভোট গ্রহণ কেন্দ্র তথা ICDS অফিসের উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে নজরে আসলো একেবারে উল্টো চিত্র। করোনার থেকে বাঁচতে প্রকৃতিকে দূষণ করতে ব্যস্ত মানুষ। করোনা সংক্রমণ রুখতে ব্যবহার করা গ্লাভস্ পড়ে রয়েছে বালুরঘাটের বি এল আর ও অফিস প্রাঙ্গণে নজরে আসলো যত্রতত্র। গ্লাভসের প্লাস্টিক যেখানে সেখানে পড়ে থাকায় একাধিক প্রশ্ন উঠছে ওই বুথের কর্তব্যরত কর্মীদের উপর। ভোটারদের ভোট দেওয়ার পর গ্লাভসগুলি করে ফেলার কথা ডাস্টবিনে। সেই জন্য ডাস্টবিন দেওয়া হয়েছিল সরকারের পক্ষথেকে। কিন্তু তা না করে সমস্ত এলাকা জুড়ে গ্লাভস পরে রয়েছে। এই মাটিতে পরে থাকা গ্লাভস নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠছে সেখানকার কর্তব্যরত সাফাই কর্মী থেকে আইসিডিএস কর্মীদের উপর। সরকারের পক্ষ থেকে গ্লাভস গুলি দেওয়া হয়েছিল করোনা থেকে সুরক্ষার জন্য। কিন্তু এই ভাবে যদি যত্রতত্র সেগুলি পড়ে থাকে তাহলে সংক্রমণ ছড়াতে পারে বলে ধারণা স্বাস্থ্যকর্মীদের।

You may have missed

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.