Wed. Sep 27th, 2023

বাশেঁর সাঁকোর পরিবর্তে পাকা ব্রিজের দাবি আত্রেয়ীর দুই পাড়ের বাসিন্দাদের।

1 min read

আজকেরবার্তা, বালুরঘাট, ১৪ মে: বাশেঁর সাঁকোর পরিবর্তে পাকা ব্রিজের দাবি আত্রেয়ীর দুই পাড়ের বাসিন্দাদের। বালুরঘাট শহর সংলগ্ন রঘুনাথপুর – কালিকাপুর সংযোগকারী আত্রেয়ী নদীতে বাঁশের সাঁকো রয়েছে বহুকাল থেকে। খড়ায় আত্রেয়ীর জল কম থাকায় চলাচলের সমস্যা না হলেও বর্ষায় চলাচলের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় বাসিন্দাদের।

অতপ্রায়, আত্রেয়ী নদীর উপর স্থায়ী সেতু নির্মানের দাবি উঠে আসছে বহুদিন থেকে। কিন্তু একাধিক অজানা কারণে এখনো বিশবাও জলে।

বালুরঘাট শহর সংলগ্ন রঘুনাথপুর – কালিকাপুর সংযোগকারী আত্রেয়ী নদীতে বাঁশের সাঁকোর বদলে পাকা ব্রিজের দাবি স্থানীয়দের। বালুরঘাট শহর সংলগ্ন রঘুনাথপুর থেকে ওপারের কালিকাপুর পর্যন্ত স্থায়ী পাকা সেতুর দীর্ঘদিন কার দাবী ছিল এলাকাবাসীর।

বালুরঘাট শহর সংলগ্ন রঘুনাথপুর ও কালিকাপুরের মাঝখানে থাকা আত্রেয়ী নদীর উপড়ে আছে অস্থায়ী বাঁশের সাঁকোটি। রঘুনাথপুর বা শহরের মানুষজনকে কাজের প্রয়োজনে ওপারে যেতে হয়। কিন্তু ওপারে থাকা কালিকাপুর, বেলাইন, ধাওল, ডাকরা, চন্দ্রদৌলা, পার্বতীপুর, মাহাতো পাড়া, কাশিপুর সহ আরো বেশ কিছু গ্রামের কয়েক হাজার মানুষকে রোজদিন সাঁকো পেরিয়ে সদর বালুরঘাট সহ অন্য যেকোনো প্রান্তে যেতে হয়।

বালুরঘাট রঘুনাথপুরে রয়েছে জেলা হাসপাতাল।বালুরঘাট জেলা হাসপাতাল থাকায় ওপারের মানুষদের এইপারে আসতে হয় এবং ওই সাঁকো দিয়ে জীবনের ঝুকীপূর্ণ ভাবে রোগীদের এইপারে আনতে হয়। বর্ষার কয়েকমাস নৌকায় পারাপার চললেও সারা বছর মানুষ যাতায়াত করে বাঁশের সাঁকোর বানিয়ে।

এ বিষয়ে দক্ষিন দিনাজপুর জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ মফিজুদ্দিন মিঞা জানান, আত্রেয়ী নদীর উপর পাকা ব্রিজের দাবি উর্ধতন কতৃপক্ষর কাছে আবেদন জানানো হয়েছে। টাকার আবেদন স্বকৃীত পেলে কাজ শুরু হবে। কেন্দ্র সরকারের কাছে টাকা চেয়ে আর্জি পাঠানো হয়েছে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে।  কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে অর্থ প্রদান না কথা রায় আটকে রয়েছে এই ব্রিজ নির্মানের কাজ। 

You may have missed

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.