Mon. May 27th, 2024

কুমারগঞ্জে আদিবাসী গৃহবধূর খুনের ঘটনায় নতুন মোড়।

1 min read

আজকেরবার্তা, কুমারগঞ্জ, ১৩মেঃ কুমারগঞ্জে আদিবাসী গৃহবধূর খুনের ঘটনায় নতুন মোড়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কুমারগঞ্জের ফকিরগঞ্জ এলাকার বড়োবাসা গ্রামের কাছে জঙ্গলে আদিবাসী এক মহিলার মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয়রা। এর পরেই দেহ উদ্ধার কে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ মৃত দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের পাঠায়। ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে পুলিশ গৃহবধূর খুনি হিসেবে তার সৎ ভাই কে আটক করে।

এদিকে শুক্রবার গৃহবধূর মৃতদেহ সৎকারের জন্য পুলিশ ওই গৃহবধূর সৎ ভাইকে ফকিরগঞ্জ শ্মশানে নিয়ে এলে আটক ব্যক্তিই প্রতিবেশীদের জানায় পুলিশ তাকে দিয়ে জোর করে খুনের কথা স্বীকার করাচ্ছে। সে এই খুনের সঙ্গে জড়িত নয়। গ্রামবাসীরা একথা শুনার পর সৎকার করতে আসা জনগণ উত্তেজিত হয়ে পড়ে। এবং তারা জানায় যে আটক ব্যক্তিকে বিনা দোষে ফাঁসাচ্ছে পুলিশ। সেই কারণেই ফকিরগঞ্জ এলাকায় পথ অবরোধ শুরু করেছে ওই মৃতার প্রতিবেশীরা। এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে।

পথ অবরোধে শামিল হয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা বালুরঘাট সংসদ সুকান্ত মজুমদার জানান, পুলিশ চেষ্টা করছে বিষয় টি ধামা চাপা দেওয়ার জন্য।কোন তদন্ত না করেই তার সৎ ভাই কে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায় বিগত প্রায় একমাস যাবত ওই ভাই বোনের মধ্যে ঝামেলা চলছিল। দুই শো টাকার জন্য দিদিকে খুন করার অভিযোগ উঠল সৎ ভাইয়ের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় সৎ ভাই রবীন টুটু(20) কে শুক্রবার সকালে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার রাহুল দে বলেন এ ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ।পুলিশি জেরায় ঘটনাটি স্বীকার করে নেয় সৎ ভাই । পাশাপাশি যে পাথরটি দিয়ে আঘাত করে মারা হয়েছে সেই পাথর,দড়ি ও রক্তমাখা একটি জামা উদ্ধার করা হয়েছে। সংখ্যক মানুষ এই ঘটনাটি অন্যদিকে ঘুরিয়ে যাবার চেষ্টা করছে কিন্তু বিষয়টি সেরকম নয় ওই মহিলার দেহে ধর্ষণের কোন চিহ্ন পাওয়া যায় নি। তবে পিএম রিপোর্ট আসলে পরে বিষয়টি আরো পরিস্কার হয়ে যাবে।

 

You may have missed

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.