Thu. Feb 29th, 2024

বিধায়ক উন্নয়ন তহবিলের টাকায় বালুরঘাট চকভবানী শ্মশানে বসানো হয়েছে সোলার লাইট।অথচ বিধায়ক অশোক লাহিড়ীর কৃতজ্ঞতা স্বীকার করে নি বালুরঘাট পুরসভা কর্তৃপক্ষ অভিযোগ বিজেপির

1 min read

আজকেরবার্তা, বালুরঘাট, দক্ষিণ দিনাজপুর, ৮ ডিসেম্বরঃ বিধায়ক উন্নয়ন তহবিলের টাকায় বালুরঘাট চকভবানী শ্মশানে বসানো হয়েছে সোলার লাইট। অথচ বিধায়ক অশোক লাহিড়ীর কৃতজ্ঞতা স্বীকার করে নি বালুরঘাট পুরসভা কর্তৃপক্ষ। লাগানো হয়নি কোন ফলক৷ যা নিয়ে সরব হয়েছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির অভিযোগ, বিজেপি বিধায়কের তহবিলের টাকায় সোলার লাইট বসেছে, তা সাধারণ মানুষকে জানাতে না চাওয়ায় বালুরঘাট পৌরসভা বিধায়ককে আমন্ত্রণ জানায়নি, এমনকি বিধায়ক তহবিলের উল্লেখে কোনো ফলক পর্যন্ত নেই।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বালুরঘাট চকভবানী শ্মশান কালীবাড়ি এলাকায় এক সোলার লাইট উদ্বোধন করেন বালুরঘাট পৌরসভার চেয়ারম্যান অশোক মিত্র। চেয়ারম্যান ছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান প্রদীপ্তা চক্রবর্তী, চেয়ারম্যান ইন কাউন্সিল বিপুল কান্তি ঘোষ সহ অন্যান্য কাউন্সিলাররা ওই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। দীর্ঘদিনের দাবি মেনে কালী মন্দির, শ্মশান ঘাট ও তৎসংলগ্ন কবরস্থান অন্ধকারাচ্ছন্ন থাকায় বালুরঘাট পৌরসভা এই বাতি লাগায়। যদিও এক লক্ষ টাকা ব্যয়ে পৌরসভা এই বাতি লাগালেও, বিধায়ক তহবিলের টাকার কোনো উল্লেখ করা হয়নি।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা বিজেপি সভাপতি স্বরূপ চৌধুরী জানান, গত ৬ তারিখে বালুরঘাট পৌরসভা চকভবানী শ্মশানে সৌর বাতিস্তম্ভের উদ্বোধন করে। বিধায়ক তহবিলের টাকায় বাতি স্তম্ভের কাজ হলেও, বিজেপির বিধায়ক হওয়ায় তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি এমনকি বিধায়ক তহবিলের কোন উল্লেখও করা হয়নি। বিজেপির বিধায়ক এলাকা উন্নয়নের কাজ করলেও তা নিজেদের নামে চালানো হয়েছে।

এনিয়ে অবশ্য মাথা ঘামাতে চাননি বালুরঘাট পৌরসভার চেয়ারম্যান অশোক মিত্র। তিনি বলেন, টাকাটা কারো ব্যক্তিগত নয়। বিইউপির মাধ্যমে পুরসভা এই কাজ করেছে। এই ফলক লাগানো হবে। প্রচারের আলোয় আসার জন্য বিজেপি এইসব করছে।

যদিও, বালুরঘাটের বিজেপি বিধায়ক অশোক লাহিড়ী বালুরঘাট পুরসভা এবং চেয়ারম্যানের প্রশংসা করেছেন সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে কাজ করার জন্য। তিনি বলেন, নামের জন্য নয়, উন্নয়নের স্বার্থে বিধায়ক তহবিলের টাকায় পৌরসভা যে কাজ করেছে, তাতেই আমি কৃতজ্ঞ। আমার নামের প্রয়োজন নেই, মানুষের উন্নতি টাই বড় আমার কাছে। তৃনমূল কৃতিত্ব নিতে চাইলে আমার কোনো আপত্তি নেই।

 

You may have missed

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.