Thu. Apr 25th, 2024

পঞ্চায়েত নির্বাচন উপলক্ষে বালুরঘাট ডিসিআরসি থেকে বিভিন্ন বুথে রওনা হচ্ছেন ভোট কর্মীরা।

1 min read

আজকেরবার্তা, বালুরঘাট, ৭ জুলাই: পঞ্চায়েত নির্বাচন উপলক্ষে বালুরঘাট ডিসিআরসি থেকে বিভিন্ন বুথে রওনা হচ্ছেন ভোট কর্মীরা। নির্বাচনের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে বালুরঘাট ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় নির্বাচনের বুথগুলিতে ভোট কর্মী পাঠানোর প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। কাজের সঙ্গে যুক্ত অন্যান্য সম্মতি নিয়ে নিজ নিজ গন্তব্যর দিকে রওনা হচ্ছেন ভোট কর্মীরা। বিগত দিনের পঞ্চায়েত নির্বাচনের তিক্ত অভিজ্ঞতার পর এবারে নির্বাচন কেন্দ্রে কেন্দ্র বাহিনীর উপস্থিতি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করছে ভোট কর্মীরা।

রাত পেরোলেই শুরু গনতন্ত্রের সব থেকে বড় উৎসব নির্বাচন। পশ্চিমবঙ্গের অনুষ্ঠিত হবে ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচন। ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচন কে কেন্দ্র করে সাজে সাজো রব জেলা জুড়ে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপস্থিতির আর্জি বহুদিন ধরেই করে আসছে যৌথ মঞ্চ। তবে জেলা মাত্র ৮ কোম্পানির কেন্দ্র বাহিনী উপস্থিত হওয়ায় প্রত্যেকটি নির্বাচনী কেন্দ্রে  কেন্দ্র বাহিনীর উপস্থিতি নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করছে ভোট কর্মীরা।

কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে এদিন বালুরঘাট ডি সি আর সি থেকে ডিস্ট্রিবিউশন সেন্টার থেকে ব্যালট ও ব্যালট বাক্স সংগ্রহ করে রিপোর্ট কর্মীরা। পঞ্চায়েত নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা রয়েছে ব্যালট ও ব্যালট বাক্স নিয়ে। বালুরঘাট কলেজ থেকে ভোটের সামগ্রী প্রদান করা হপ্য ভোট কর্মী দের। ও পরবর্তীতে বালুরঘাট হাই স্কুলের মাঠ থেকে বাসে করে ভোট কেন্দ্রের উদ্যেশ্যে রউনা দেয় ভোট কর্মীরা।

বিগত ২০১৮ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনে দক্ষিণ দিনাজপুর,  উত্তর দিনাজপুর সহ অন্যান্য বহু জেলায় নির্বাচন কে কেন্দ্র করে একাধিক তিক্ত অভিজ্ঞতা স্বীকার হতে হয়েছে ভোট কর্মীদের বলে অভিযোগ তাদের৷ পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলির কাদা ছোড়াছড়িতে আক্রান্ত হয়েছে একাধিক ভোট কর্মী বলে অভিযোগ তাদের। তাই এবার দুরুদুরু বুকে নিজেদের ভোট কেন্দ্রের উদ্যেশে রউনা হচ্ছে বালুরঘাট ব্লকের ভোট কর্মীরা।

ভোট কর্মীদের অভিযোগ, বিগত দিনে পঞ্চায়েত নির্বাচনের তিক্ত অভিজ্ঞতার কারণে ভোট কর্মীদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে  যৌথ মঞ্চের পক্ষ থেকে একাধিক আন্দোলন করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। যৌথ মঞ্চের পক্ষ থেকে একাধিকবার নির্বাচন কেন্দ্রে কেন্দ্র বাহিনীর উপস্থিতির জন্য আবেদন জানানো হয়েছে জানান তারা। কিন্তু জেলায় শুধুমাত্র ৮ কোম্পানির কেন্দ্র বাহিনী পাঠানোই  নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে ভোট কর্মীদের মনে।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ৮টি ব্লকে মোট ১২২৩টি বুথ রয়েছে পঞ্চায়েত নির্বাচনে। যেখানে লক্ষ্য করা যাচ্ছে জেলায় পঞ্চায়েত নির্বাচনের বুথ সংখ্যা থেকে কেন্দ্র বাহিনী সংখ্যা কম। সেখানে দাঁড়িয়ে ডিসিআরসি থেকে নির্বাচন কেন্দ্রের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়া ভোট কর্মীদের মনে নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে একাধিক প্রশ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। বিগত দিনের পঞ্চায়ে  নির্বাচনে একাধিক অপ্রীতিকর ঘটনার ছবি উঠে এসেছিল জেলা জুড়ে বলে অভিযোগ ভোট কর্মীদের। সেখানে দাঁড়িয়ে নিরাপত্তাহীন ভাবে ভোট কর্মীদের ভোট নিতে বিভিন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের কেন্দ্রগুলিতে পাঠানো হচ্ছে বলে জানান তারা।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট, তপন, গঙ্গারামপুর, কুমারগঞ্জ, হরিরামপুর, বংশীহারী, কুশমুন্ডি, হিলি এই মোট আটটি ব্লকে মোট ১১৫৭৭১৭ জন ভোটার রয়েছে পঞ্চায়েত নির্বাচনে। জেলায় মোট বুথ রয়েছে ১২২৩ টি। সরকারী কর্মী ও শিক্ষক মিলিয়ে জেলায় মোট ভোট কর্মী রয়েছেন ৩৪৭৩ জন। কিন্তু মাত্র ৮ কম্পানির কেন্দ্র বাহিনীর উপস্থিতি থাকায় ভোট কর্মীদের মধ্যে নিজেদের নিরাপত্তাকে কেন্দ্র করে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার বালুরঘাট ডিসিআরসি থেকে বালুরঘাট ব্লকের বিভিন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের বুথ কেন্দ্রগুলিতে ভোট কর্মী পাঠানো শুরু হয়েছে ইতিমধ্যেই। সরকারিভাবে কর্মীদের নিরাপত্তার কথা জানানো হয়েছে ইতিমধ্যেই কিন্তু যৌথ মঞ্চের পক্ষ থেকে অধিক পরিমাণে কেন্দ্র বাহিনীর উপস্থিতির আর্জি জানানোর পরও শুধুমাত্র ৮ কোম্পানির কেন্দ্র বাহিনী উপস্থিত হওয়ায় ভোট কর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা।

প্রতিবার ভোট কর্মীদের সঙ্গে ডিসিআরসি থেকেই কেন্দ্রীয় বাহিনী রওনা হয় ভোট কেন্দ্রের উদ্যেশ্যে। কিন্তু এবার প্রশাসনের পক্ষ থেকে এবার জানানো হয়েছে, কেন্দ্রীন বাহিনী নাকি ভোট কেন্দ্রেই উপস্থিত থাকবে। তবে বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের তিক্ত অভিজ্ঞতা থাকায় নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত ভোট কর্মীরা। তাই তাদের দাবি ভোট কেন্দ্রে পৌঁছানো না পর্যন্ত তারা আশ্বস্ত হবেননা বলেই দাবি ভোট কর্মীদের।

You may have missed

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.