Thu. Apr 25th, 2024

বালুরঘাট-হিলি ৫১২ নম্বর জাতীয় সড়ক দখলমুক্ত অভিযানে নামল বালুরঘাট থানার পুলিশ।

1 min read

 

আজকেরবার্তা, বালুরঘাট, ২মেঃ দিন দিন বেড়ে চলা দূর্ঘটনা প্রতিরোধ করতে এবারে উদ্যোগী হল পুলিশ প্রশাসন। বালুরঘাট হিলি 512 নম্বর জাতীয় সড়ক দুর্ঘটনার হার কমাতে এবারে পদক্ষেপ গ্রহণ করল বালুরঘাট থানার পুলিশ। সোমবার বালুরঘাট-হিলি ৫১২ নম্বর জাতীয় সড়ক দখলমুক্ত অভিযানে নামল বালুরঘাট থানার পুলিশ। প্রথমত মৌখিকভাবে সতর্ক করা হচ্ছে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে। তবে আপাতত সতর্ক করলেও পরবর্তীতে কড়া পদক্ষেপ নেবে পুলিশ প্রশাসন বলে জানান দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পুলিশের আধিকারিকেরা।
দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট থেকে হিলি পর্যন্ত কম করেও 25 কিলোমিটার জাতীয় সড়ক রয়েছে। আর এই জাতীয় সড়কের উপরে বেশ কিছু অসাধু ব্যবসায়ী জাতীয় সড়কের বেশ কিছু অংশ দখল করে নিজেদের ব্যবসা প্রসার করছে। তারই জেরে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে গাড়িচালকদের এবং বাড়ছে দুর্ঘটনার হার।

সম্প্রতি ফোর লেনের কাজ সম্পাসারন করা হচ্ছে এই রাস্তায়। তার জেরে আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে 512 নম্বর জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনার হার। এমত পরিস্থিতিতে দুর্ঘটনার হার কমাতে উদ্যোগী হল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পুলিশ প্রশাসন।
গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তার দুধারে আছে জনবসতি এলাকা। যার মধ্যে অন্যতম মালঞ্চা, কামারপাড়া, বাদামাইল, তিওর, ত্রিমোহীনি বালুপাড়া সহ অন্যান্য এলাকায় হয়েছে। এই জনবসতি এলাকা দিয়ে যাওয়া ৫১২ নম্বর জাতীয় সড়কের ধারের অনেকটা অংশ স্থানীয় ব্যবসায়ী ও অসাধু মানুষের দখলে। কেউ কেউ সেখানে তেলের টিন সারি দিয়ে সাজিয়েছে তো কেউ ইট, বালি, পাথর রেখে ব্যবসা করছেন। ফেলে রাখা হয়েছে সিমেন্টের পিলার, নির্মান সামগ্রী। পাশাপাশি, সড়ককেই পার্কিং জোন তৈরি করে ফেলেছেন হোসেনপুর এলাকার একশ্রেনী মানুষজন। গুরুত্বপূর্ণ ওই রাস্তার ধারগুলো দখল হয়ে পরায় সমস্যায় যানবাহন চলাচল।
প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন আগে এভাবে রাস্তা দখল করে ধান শুকতে দেওয়ার কারণে পথ দূর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল তপন ব্লকের বিডিওর। ঘটনায় সজাগ হয়েছিল প্রশাসন। তবে বছর ঘুরতে না ঘুরতেই প্রশাসনিক নিস্ক্রিয়রা সামনে আসে। তবে সম্প্রতি আবারো বেড়ে গিয়েছে পথ দূর্ঘটনার হার। প্রশাসনিক ভূমিকা নিয়ে উঠে নানান প্রশ্ন। অবশেষে জেলা পুলিশের নির্দেশে জাতীয় সড়ক দখলমুক্ত করতে নামে বালুরঘাট থানার পুলিশ।
গুড় ও তেলের টিন রাস্তায় মজুতকারী দুলালী দেবনাথ জানান, এভাবে রাস্তা আটকানো যাবে না জানতাম। তবু কিছু সমস্যায় কারণে সামগ্রী রাস্তায় রেখেছিলাম। পুলিশ সতর্ক করে দিয়েছে। সামগ্রীগুলি স্রুত সরিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান মজুতকারী।
এবিষয়ে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, একশ্রেনীর মানুষ এমনটা করছে। পুলিশ অন্যায়কারীদের খুঁজে প্রথমে সতর্ক করছে। দ্রুত রাস্তা দখলমুক্ত না হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

You may have missed

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.